উত্তরপ্রদেশের প্রয়াগরাজে ১৬ জন বিদেশি নাগরিক সহ ১৯ জন জামাতিকে গ্রেফতার করা হয়েছে

প্রয়াগরাজ: উত্তর প্রদেশের প্রয়াগরাজে ১৬ জন বিদেশি নাগরিকসহ ১৯ জন জামাতিকে (তাবলিগী জামাতের লোক) গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত আমানতের মধ্যে ৭ জন ইন্দোনেশিয়ার এবং ৯ জন থাইল্যান্ডের। এ ছাড়া জামায়াতে যোগদানকারী এলাহাবাদ কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপককেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ শহিদের বিরুদ্ধেও বিদেশীদের আশ্রয় প্রদানে সহায়তা করা এবং চুপ করে ঐ ব্যাক্তিদের লুকিয়ে রাখার অভিযোগ রয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, জামায়াতীদের (Tablighi Jamaat) সাথে তার ১২ জন সহায়ককেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এক্ষেত্রে তিনটি থানা এলাকা থেকে মোট ৩০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সবাইকে কারেলি, শাহগঞ্জ ও শিবকুটি অঞ্চল থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বলা হচ্ছে বিদেশিরা শহরের দুটি মসজিদে লুকিয়ে ছিল। এই ইন্দোনেশীয় জামাতি রিপোর্টগুলির মধ্যে একটি করোনার ইতিবাচক ছিল। কোভিড হাসপাতালে চিকিত্সার মাত্র দু’দিন পরে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল। গ্রেপ্তার হওয়া ৩০ জনকে আজ বিকেলে আদালতে হাজির করা হবে।

আপনাকে জানিয়ে রাখি যে দু’দিন আগে স্বাস্থ্য মন্ত্রক প্রকাশ করেছিল যে দেশে করোনার সংক্রমণের মোট মামলার ৩০ শতাংশেরও বেশি তবলিগী জামায়াতের (Tablighi Jamaat) সাথে সম্পর্কিত। তাবলিগী জামায়াতের অবহেলার কারণে দেশে করোনার সংক্রমণের ঘটনা বেড়েছে। এর পরেও জামায়াতের লোকজন প্রশাসনকে সমর্থন করছে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *