কোটি টাকার আর্থিক সহায়তার পরে এখন সালমান খান ট্রাকে ভরে খাবার পাঠালেন দৈনিক মজুরির শ্রমিকদের বাড়িতে

বলিউডের দাবাং অর্থাৎ সালমান খান (Salman Khan) করোনা ভাইরাসে (Coronavirus) আক্রান্ত শ্রমজীবী ​​ও দরিদ্র লোকদের জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করছেন। তিনি চলচ্চিত্রের শিল্পের সাথে যুক্ত কয়েক হাজার দৈনিক মজুরির শ্রমিকদের বাড়িতে রেশন ও সব ধরণের প্রয়োজনীয় জিনিস সরবরাহ করার ঘোষণা দিয়েছেন। সম্প্রতি এটি মাথায় রেখে সালমান খান ১৬০০০ দৈনিক শ্রমিকের অ্যাকাউন্টে অর্থ পাঠিয়েছিলেন। এখন তিনি শ্রমিকদের জন্য ট্রাক ভরা খাবার পাঠালেন।

প্রতিদিন শ্রমিকদের খাবার সরবরাহের বিষয়ে তথ্য দিয়েছেন বান্দ্রা পূর্ব অঞ্চলের বিধায়ক জিশান সিদ্দিকী। জিশান সিদ্দিকী তার অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে খাবারের আইটেম ভর্তি একটি ট্রাকের ছবি শেয়ার করেছেন। এই ছবিগুলির সাহায্যে তিনি সালমান খানকে ট্যাগ করেছেন এবং ধন্যবাদ জানিয়েছেন। জিশান সিদ্দিকী তার টুইটে লিখেছেন, ‘এই সহযোগিতার জন্য সালমান খানকে অনেক ধন্যবাদ। যখনই কারও সাহায্যের প্রয়োজন হয়, আপনি সাহায্যের জন্য সর্বদা এক ধাপ এগিয়ে থাকেন। আপনি আবার এই জিনিস প্রমাণ করেছেন।

জিশান সিদ্দিকী সালমান খান সম্পর্কে আরও একটি টুইট করেছেন। তিনি তাঁর দ্বিতীয় টুইটটিতে লিখেছেন, ‘সালমান খানকে ধন্যবাদ আমাদের সাথে যোগ দেওয়ার জন্য, কারোনা ভাইরাসের সাথে এই যুদ্ধে কারও ক্ষুধার্ত ঘুমানো উচিত নয়।’ জিশান সিদ্দিকীর এই দুটি টুইটই সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ ভাইরাল হচ্ছে। লক্ষণীয় যে এর আগে সালমান খান চলচ্চিত্র জগতের দৈনিক মজুরদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে প্রায় ৪ কোটি ৮০ লাখ টাকা পাঠিয়েছেন। এছাড়াও, তিনি আগামী দিনেও শ্রমিকদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে অর্থ স্থানান্তর করবেন।

ফেডারেশন অফ ওয়েস্টার্ন ইন্ডিয়া কর্মচারীদের (এফডব্লিউআইসিসি) তরফ থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুসারে, ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে দৈনিক মজুরিপ্রাপ্ত শ্রমিকরা রয়েছেন ১৯ হাজার। এর মধ্যে যশরাজ ফিল্মস তিন হাজার শ্রমিকের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে পাঁচ-পাঁচ হাজার টাকা পাঠিয়েছিলেন। সালমান খান বাকি ১৬০০০ শ্রমিকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে তিন হাজার করে টাকা পাঠিয়েছেন। এভাবে সালমান খান শ্রমিকদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে প্রায় ৪ কোটি ৮০ লাখ টাকা পাঠিয়েছেন।

মহারাষ্ট্রে করোনার ভাইরাসের ক্রমবর্ধমান প্রাদুর্ভাবের প্রেক্ষিতে, সালমান খান আসন্ন মাসেও শ্রমিকদের অ্যাকাউন্টে অর্থ পাঠাবেন। সালমান খান আগামী মাসে পুরো ১৯০০০ জন শ্রমিকের অ্যাকাউন্ট-এ টাকা হস্তান্তর করবেন। অন্যদিকে, আপনি যদি মুম্বাইতে থাকেন এবং চলচ্চিত্র জগতে দৈনিক মজুরির শ্রমিক হিসাবে কাজ করেন, তবে আপনি অবশ্যই ফেডারেশন অফ ওয়েস্টার্ন ইন্ডিয়া সিন এমপ্লয়িজকে আপনার তথ্য দেবেন যাতে আপনারও সহায়তা করা যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *